1. dailygonochetona@gmail.com : admi2017 :
  2. aminooranzan@gmail.com : Amin Anzan : Amin Anzan
  3. aminooranzan24@gmail.com : Amin Anzan : Amin Anzan
  4. chanmiahsw@gmail.com : chan miah : chan miah
  5. sbnews74@gmail.com : sajahan biswas : sajahan biswas
রবিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ০২:৩০ অপরাহ্ন

শিবালয়ে জাতীয় পরিচয় পত্রের জটিলতায় করোনা টিকাসহ সরকারী সেবা বঞ্চিত প্রায় ১শ’ লোক

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১২ অক্টোবর, ২০২১, ৮.১৫ এএম
  • ১০৬ বার পঠিত

শাহজাহান বিশ্বাসঃ ১২ অক্টোবর ২০২১
মানিকগঞ্জের শিবালয়ে জাতীয় পরিচয় পত্রে স্থান পরিবর্তনের জন্য আবেদন করার পর জটিলতা সৃষ্টি হওয়ায় মহা বিপদে পড়েছেন ২৭টি পরিবারের শতাধিক লোক। দীর্ঘ এক বছরেও মিলেনি তাদের স্থানান্তিরিত ঠিকানায় জাতীয় পরিচয় পত্র। ফলে করোনা টিকার নিবন্ধন, মোবাইলফোনের সিম উঠানো, ছেলে-মেয়ের স্কুলে ভর্তি, পাসপোর্ট, জমিজমা ক্রয়-বিক্রয় করতে পারছেন না। এছাড়া সরকারী-বেসরকারী অনুদানসহ নানাবিধ সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন বলে অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী এসব লোকজন। জাতীয় পরিচয় পত্র সংশ্লিষ্ট কোন কাজই করতে পারছেন না তারা। এসব লোকজন প্রয়োজনীয় কাগজপত্র,তথ্য-উপাত্ত জমা দিয়ে এক বছরেও জাতীয় পরিচয় পত্র না পাওয়ায় মহা দু:শ্চিন্তায় রয়েছেন। এ পরিস্থিতিতে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষন করছেন এসব ভুক্তভোগী লোকজন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, মানিকগঞ্জ জেলার শিবালয় উপজেলার তেওতা ও শিবালয় ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের চর শিবালয়, কানাইদিয়া এবং আলোকদিয়া, চর বৈষ্টমী এলাকায় বিগত কয়েক বছর ধরে যমুনা নদীর ভাঙ্গনে বহু বাড়ি-ঘর ও জায়গা জমি নদী গর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। এসব এলাকার প্রায় অর্ধশত পরিবার শিবালয় ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের ছোট আনুলিয়া ও দক্ষিণ শিবালয় এসে নতুন করে বাড়ি-ঘর নির্মাণ করে বসবাস করছেন। নতুন করে বসতি স্থাপান করায় জাতীয় পরিচয় পত্র সংশ্লিষ্ট যে কোন কাজ করতে গিয়ে তাদেরকে নানা ধরনের বিড়ম্বনায় পড়তে হচ্ছে। বিধায় গত ২০২০ সালের সেপ্টেম্বর মাসে জাতীয় পরিচয় পত্রে স্থান পরিবর্তনের জন্য শিবালয় উপজেলা নির্বাচন অফিস বরাবরে ৮৬ জনের জাতীয় পরিচয় পত্র স্থানান্তরের জন্য আবেদন করেন করা হয়েছে। কিন্তুু অদ্যবধিও নতুন ঠিকানায় তাদের জাতীয় পরিচয় পত্র পায়নি। স্থানীয় নির্বাচন অফিসে একাধিকবার যোগাযোগ করেও কোন লাভ হচ্ছে না। জাতীয় পরিচয় পত্র না পেয়ে মহা-দুশ্চিন্তায় আছেন এসব লোকজন।
ভূক্তভোগী ঠান্ডু পরধান বলেন, জাতীয় পরিচয় পত্রের অভাবে সে করোনা ভাইরাস রোধে টীকা নিতে পারছেন না। তার বাড়ি ছিল শিবালয় উপজেলার তেওতা ইউনিয়নের চর-শিবালয় এলাকায়। পরবর্তিতে ২০১৭ সালে তার বাড়ি-ঘর, জায়গা-জমি নদী ভাঙ্গনে বিলীন হয়ে গেলে একই উপজেলার শিবালয় ইউনিয়নের ৩ নং ওয়াডের্র ছোট আনুলিয়া গ্রামে এসে নতুন করে বসতি স্থাপন করেন। এরপর গত এক বছর আগে জাতীয় পরিচয় পত্রের স্থান পরিবর্তনের জন্য স্থানীয় নির্বাচন অফিসে আবেদন করেন। কিন্তুু অদ্য বধিও তিনি নতুন ঠিকানায় জাতীয় পরিচয় পত্র পাননি। এতে করোনা টিকার নিবন্ধন করতে পারছেন না। এছাড়া সরকারী নানা ধরনের সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন তিনি।
মো. আফতাব আলী বলেন, চার বছর আগে শিবালয় উপজেলার তেওতা ইউনিয়নের চর বৈষ্টমী গ্রামের বাড়ি নদীতে ভেঙ্গে যায়। এরপর শিবালয় ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের ছোট আনুলিয়া গ্রামে এসে বাড়ি করেন। তার বাড়িতে মোট নয়জন ভোটার রয়েছে। জাতীয় পরিচয় পত্র স্থানান্তরের জন্য এক বছর ধরে স্থানীয় নির্বাচন অফিসে আবেদন করেছেন তিনি। কিন্তুু আজ পর্যন্তও স্থানান্তরিত হয়নি। এ নিয়ে মহা চিন্তিত আছেন তিনি।
মো. সবুজ ব্যাপারী বলেন, আমরা গত চার বছর আগে ৫০/৬০টি পরিবার চর-শিবালয়, কানাইদিয়া থেকে এসে শিবালয় ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের ছোট আনুলিয়া গ্রামে নতুন করে বসতি স্থাপন করেছি। এক বছর পূর্বে জাতীয় পরিচয় পত্র স্থানান্তরের জন্য স্থানীয় নির্বাচন অফিসে আবেদন করেছি। কিন্তুু অদ্যবধিও আমি স্থানান্তিরিত ভোটার আইডি কার্ড পায়নি। ভোটার আইডি কার্ড না থাকায় করোনা টিকার নিবন্ধনসহ সরকারী-বেসরকারী নানা বিধ সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন এমন কি পাসপোর্ট পর্যন্ত করতে পারছেন না তিনি।
ভুক্তভোগী মো. আলম মিয়া বলেন, গত এক বছর আগে আমরা এক এলাকা থেকে মোট ২৭টি পরিবারের ৮৬জন লোক জাতীয় পরিচয় পত্র স্থানান্তরের জন্য শিবালয় উপজেলা নির্বাচন অফিসে আবেদন করেছি। কিন্তুু এক বছর পার হলেও আজ পর্যন্ত আমরা জাতীয় পরিচয় পত্র পায়নি। ফলে জাতীয় পরিচয় পত্র সংশ্লিষ্ট কাজ কর্ম করতে গিয়ে নানা ধরণের বিরম্বনায় পড়তে হচ্ছে আমাদেরকে। জাতীয় পরিচয় পত্র না থাকায় অনেক কাজই করতে পারছি না আমরা।
শিবালয় উপজেলা নির্বাচন অফিসার মো. মাহবুবুর রহমান বলেন, স্থানান্তরের জন্য উক্ত এলাকার ৪০জনের আবেদিত জাতীয় পরিচয় পত্র আমরা ঢাকাতে পাঠিয়েছি। কিছু স্থানান্তিরিত হয়েছে আর কিছু বাকী রয়েছে। বাকীগুলো হয়ে যাওয়ার পথে। অনেক সময় একাধিকবার আবেদন করলে সফটওয়ার লক হয়ে যায়। ওনাদের ক্ষেত্রে এরকম কিছু হতে পারে বলে তিনি জানান।
শাহজাহান/গণচেতনা

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazargonoche21

© All rights reserved  2020 Gonochetona.com