1. dailygonochetona@gmail.com : admi2017 :
  2. aminooranzan@gmail.com : Amin Anzan : Amin Anzan
  3. aminooranzan24@gmail.com : Amin Anzan : Amin Anzan
  4. chanmiahsw@gmail.com : chan miah : chan miah
  5. sbnews74@gmail.com : sajahan biswas : sajahan biswas
বৃহস্পতিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ০৫:০৬ অপরাহ্ন

আরিচা ও পাটুরিয়া ঘাটে ঢাকাগামী মানুষের ভিড়

  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২০ মে, ২০২১, ৯.১৪ পিএম
  • ১১৬ বার পঠিত

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধিঃ ১৭ মে

ঈদের ছুটি শেষে ঢাকাগামী কর্মমুখী মানুষের চাপ বাড়ছে আরিচা ও পাটুরিয়া ঘাটে। আরিচা-কাজিরহাট ও পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে লঞ্চ-স্পিডবোট বন্ধ থাকায় এসব যাত্রীরা ফেরিতে নদী পার হয়ে আরিচা ও পাটুরিয়া ফেরি ঘাটে আসছে। গণপরিবহণ বন্ধ থাকায় এসব যাত্রীরা ঘাট এলাকা থেকে জেলার মধ্যে চলাচলকারী লোকাল বাস ও প্রাইভেটকার ও মাইক্রোবাস যোগে ভেঙ্গে ভেঙ্গে গন্তব্য পৌঁচাচ্ছে। এ সুযোগে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করছে প্রাইভেটকার ও মটরসাইকেল চালকরা।
যাত্রীবাহী জেলা ভিত্তিক বাস, ভাড়ায় চালিত প্রাইভেটকার এবং মোটরসাইকেলে করে নির্দিষ্ট গন্তব্যে ছুটছে মানুষ। তবে নির্ধারিত ভাড়ার চেয়ে অতিরিক্ত ভাড়া গুনতে হচ্ছে যাত্রীদেরকে। এতে করে বিপাকে পড়েছে নি¤œ আয়ের মানুষেরা।
সোমবার (১৭ মে) বেলা ১১টার দিকে আরিচা ৩নং ঘাটে কাজিরহাট থেকে ছেড়ে আসে ফেরি সুফিয়া কামাল। ফেরিতে দু’/একটি গাড়ি ছিল। এছাড়া সম্পুর্ণ ফেরিতে যাত্রী বোঝাই ছিল। ফেরি ঘাটে ভেড়ার সাথে সাথে দল বেধে হাজার হাজার যাত্রী নামতে থাকে। এতে করোনা সংক্রমোনের আশংকা করছেন অনেকেই। এসব যাত্রী পরিবহণের জন্য ঘাট এলাকায় অপেক্ষা করতে দেখা গেছে লোকাল বাস, প্রাইভেটকার , মাইক্রোবা ও মটরসাইকেল। এসব পরিবহণ মানিকগঞ্জের শেষ সিমানা পর্যন্ত যাত্রী প্রতি ১শ’ টাকা করে ভাড়া আদায় করছে। ওখান থেকে যাত্রীরা অন্য পরিবহণে গন্তব্যে যাচ্ছে যাত্রীরা।
ভোর থেকে সকাল ৮/৯টা পর্যন্ত নবীনগর পর্যন্ত সেলফি ও নীলাচল বাস যাত্রী পরিবহণ করলেও বেলা বাড়ার সাথে সাথে তা বন্ধ হয়ে যায়। এরপর থেকে জেলা ভিত্তিক যাত্রী পরিবহণ করতে থাকে এসব পরিবহণ। মানিকগঞ্জের সিমানা পর্যন্ত যাত্রী পরিবহণ করে এরা। এখান থেকে প্রাইভেটকার, মাইক্রোবাস ও মটর সাইকেলে গন্তব্যে যাচ্ছে এসব যাত্রীরা।
পাবনার মো. আবুল কালাম বলেন, আরিচা-কাজিরহাট নৌরুটে অন্য কোন নৌযান চলাচল না করায় করোনার ঝুকি থাকা সত্তে¦ও ফেরিতে গাদাগাদি করে বসে নদী পার হয়েছি। কারণ ঈদের ছুটি শেষ অফিস খুলেছে, ঢাকা যেতেই হবে।
বাস শ্রমিকরা বলছেন, তারা জেলার বারবাড়িয়া পর্যন্ত ১শ’ টাকা করে ভাড়া নিয়ে স্বাস্থ্যবিধি  মেনে যাত্রী পরিবহণ করছে। প্রাইভেটকার ও মটরসাইকেল যাত্রী প্রতি ৫শ’ থেকে ১ হাজার টাকা করে আদায় করছে। যাত্রীরা ভেঙ্গে ভেঙ্গে গন্তব্যে যাচ্ছে।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক প্রাইভেটকার চালক বলেন, আরিচা থেকে গাবতলী পর্যন্ত যাত্রী প্রতি ৫শ’ টাকা করে ভাড়া নিয়ে যাত্রী পরিবহণ করছেন।
জৈনক মটরসাইকে চালক বলেন, আরিচা ঘাট থেকে গাবতলী পর্যন্ত যাত্রী প্রতি ১হাজার টাকা করে নিচ্ছেন। রাস্তায় অনেক ঝক্কি -ঝামেলা রয়েছে তাই ভাড়া বেশী নেওয়া ছাড়া কোন উপায় নেই।
এদিকে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে জেলা ভিত্তিক চলাচলকারী পরিবহণে স্বাস্থ্যবিধি না মানায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করছে উপজেলা প্রশাসন। সাতটি মামলায় তিন হাজার ৫শ’ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।
এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বি,এম রুহুল আমিন রিমন বলেন, স্বাস্থ্যবিধি না মানায় তিনটি বাসা এবং চারজন যাত্রীকে জরিমানা করা হয়েছে। করোনা সংক্রমোন রোধে এ মোবাইল কোর্ট অব্যাহত থাকবে বলে তিনি জানান।
শাহজাহান বিশ্বাস, মানিকগঞ্জ।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazargonoche21

© All rights reserved  2020 Gonochetona.com