1. dailygonochetona@gmail.com : admi2017 :
  2. aminooranzan@gmail.com : Amin Anzan : Amin Anzan
  3. aminooranzan24@gmail.com : Amin Anzan : Amin Anzan
  4. chanmiahsw@gmail.com : chan miah : chan miah
  5. sbnews74@gmail.com : sajahan biswas : sajahan biswas
শুক্রবার, ২৯ অক্টোবর ২০২১, ০৩:১৩ পূর্বাহ্ন

আরিচা ও পাটুরিয়া ঘাটে যানবাহনের চাপ বাড়ি ফেরা মানুষের উপচে পড়া ভীড় জনদুর্ভোগ চরমে

  • আপডেট টাইম : শনিবার, ১৭ এপ্রিল, ২০২১, ১২.৫৩ এএম
  • ৫৩ বার পঠিত

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি: ১৩ এপ্রিল

ঘোষিত লকডাউনে ঈদের পুর্বের মতো বাড়তি যানবাহনের চাপ এবং বাড়ি ফেরা মানুষের উপচে পড়া ভীর পড়েছে আরিচা ও পাটুরিয়া ঘাটে। এতে জনগনের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। ফেরি ও ট্রলার ঘাটে উপক্ষিত হচ্ছে স্বাস্থ্য  বিধি। ফলে করোনা ভাইরাস সংক্রমনের আশংকা করছেন স্থানীয়রা। এছাড়া ছোট গাড়ি এবং পণ্যবাহী ট্রাকের সাড়িও রয়েছে দুই ঘাটে।

জানা গেছে, ১৪ এপ্রিল থেকে সরকার কঠোর লকডাউন ঘোষণা করার পর রাজধানী ঢাকা ছাড়তে শুরু করেছে কর্মজীবি মানুষ। গত দ্ইু দিন ধরে আরিচা ও পাটুরিয়া ঘাটে যাত্রী ও যানবাহনের অত্যাধিক চাপ পড়েছে। সর্বাত্মাক লকডাউনের পূর্বের দু’দিন স্বাস্থ্য বিধি মেনে দেশব্যাপী যোগাযোগ ব্যবস্থা সচল রাখা হয়েছে। এই সুযোগে পরিবহণ শ্রমিকরা যাত্রীদের নিকট থেকে নির্ধারিত ভাড়ার চেয়ে ৫/৭ গুণ অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করছে। যার ফলে আইন-শৃক্সখলা বাহিনী পথিমধ্যে বেশ কিছু যাত্রীবাহী বাস আটক করেছে। এতে জনদুর্ভোগ চরম আকার ধারণ করেছে। গন্তব্যমুখী নিরুপায় যাত্রীরা রাস্তায় নেমে ৬/৭মাইল পায়ে হেটে আরিচা ও পাটুরিয়া ঘাটে পৌঁছাচ্ছে। ভ্যাপসা গরমে বৃদ্ধ-শিশু ও নারীদের অনেকেই ঘাটে এসে ক্লান্ত ও অসুস্থ্য হয়ে পড়েছে।

মঙ্গলবার দুপুরে সরেজমিনে আরিচা ও পাটুরিয়া ঘাট ঘুরে দেখা গেছে, দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের যাত্রীরা ফেরি এবং ফেরি না পেলে অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে ট্রলারযোগে নদী পারাপার হচ্ছে। এসব যাত্রীরা লোকাল গণপরিবণের পাশাপাশি প্রাইভেটকার, মাইক্রোবাস, মটর সাইকেল, অটো ও সিএনজিতে করে যাতায়াত করছে। এসব পরিবহণ শ্রমিকরা যাত্রী প্রতি ৪শ’ থেকে ৫শ’ টাকা করে ভাড়া আদায় করছে। ফলে কঠোর লকডাউনের পূর্বে পথে ঘাটে চরম দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন অসহায় যাত্রীরা।
অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের ব্যাপারে শিবালয় উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট
বি,এম রুহুল আমিন রিমন সাংবাদিকদের বলেন, ঘাট সংশ্লিষ্ট এলাকায় অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের বিষয়টি আমার জানা ছিল না। এখনই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। কেউ যাত্রী হয়রানি করে রেহাই পাবে না।

বিআইডব্লিউটিসি’র ডি,জি,এম বলেন, ১৪ এপ্রিল সর্বাত্মক লকডাউনের কারণে ঘাট এলাকায় যাত্রী এবং যানবাহনের চাপ বেড়েছে। সচল সবগুলো ফেরি দিয়ে যাত্রী এবং যানবাহন পারাপার করা হচ্ছে।
এসব ব্যপারে শিবালয় থানার অফিসার ইনচার্জ মো. ফিরোজ কবির বলেন, অতিরিক্ত যাত্রী ও যানবাহন পারাপারে কোন রকম অনিয়ম বরদাস্ত করা হবে না। আইন-শৃক্সখলাবাহিনী ঘাট এলাকায় সর্বাদা সজাগ ও সচেষ্ট আছে।

শাহজাহান বিশ্বাস, মানিকগঞ্জ।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazargonoche21

© All rights reserved  2020 Gonochetona.com