1. dailygonochetona@gmail.com : admi2017 :
  2. aminooranzan@gmail.com : Amin Anzan : Amin Anzan
  3. aminooranzan24@gmail.com : Amin Anzan : Amin Anzan
  4. chanmiahsw@gmail.com : chan miah : chan miah
  5. sbnews74@gmail.com : sajahan biswas : sajahan biswas
রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ০২:৫১ পূর্বাহ্ন

শিবালয়ে জাটকা সংরক্ষণে ৮শ’১০ জেলে পরিবারের মাঝে চাল বিতরণ

  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ১১ মার্চ, ২০২১, ১১.১৪ পিএম
  • ১৫০ বার পঠিত

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধিঃ ১১ মার্চ

মানিকগঞ্জের শিবালয়ে জাটকা ধরা বন্ধে ৮শ’ ১০ জেলেদের মাঝে ভিজিএফের চাল বিতরণ করা হয়েছে। শিবালয় উপজেলা প্রশাসন ও মৎস্য বিভাগের উদ্যোগে এ চাল বিতরণ করা হয়।

উপজেলার শিবালয়, তেওতা ও আরুয়া এ তিনটি ইউনিয়নে গত ৯ মার্চ থেকে পৃথকভাবে এ চাল বিতরণ করা হয়েছে। এসব ইউনিয়েনে প্রায় ২ হাজার কার্ডধারী জেলে রয়েছে। এর মধ্যে তেওতা ইউনিয়নে ৩শ’ ৬০টি, আরুয়া ইউনিয়নে ২শ’ ৫০টি এবং শিবালয় ইউনিয়নে ২শ’ টি মোট ৮শ’ ১০টি জেলে পরিবারের মাঝে এ চাল দেওয়া হয়। প্রতি প্ররিবারের জন্য ৪০ কেজি করে চাল দেওয়া হয়েছে। জাটকা নিধন রোধ কল্পে কার্ডধারী জেলেদেরকে চার মাস এ চাল দেওয়া হবে বলে মৎস্য বিভাগ সুত্রে জানা গেছে।
চাল বিতরনকালে উপস্থিত ছিলেন, শিবালয় উপজেলা নির্বাহী অফিসার বি এম রুহুল আমিন রিমন, মৎস্য কর্মকর্তা মো. রফিকুল আলম, তেওতা ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল কাদের, শিবালয় ইউপি চেয়ারম্যান মো. আলাল উদ্দিন আলাল, আরুয়া ইউপি চেয়ারম্যান আকতারুজ্জামান খান মাসুম প্রমুখ।

উল্লেখ্য চাহিদা অনুপাতে বরাদ্ধ খুবই অপ্রতুল। শিবালয় উপজেলায় নিবন্ধকৃত কার্ডধারী প্রায় ২ হাজার এবং এর বাইরেও অনেক জেলে রয়েছে। এর মধ্যে মাত্র ৮শ’ ১০জন জেলেকে চাল দেওয়া হয়েছে। বরাদ্ধ আরো বাড়ানো দরকার বলে স্থানীয়রা মনে করেন।
এব্যাপারে তেওতা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল কাদের বলেন, আমার ইউনিয়নে তালিকাভুক্ত জেলে রয়েছে ১৬শ’ ৬৫জন আর চাল পেয়েছে মাত্র ৩শ’ ৫০জন। এতে দেখা গেছে পাঁচ ভাগের এক ভাগ জেলেও চাল পায়নি। এটা চাহিদার তুলনায় খুবই অপ্রতুল। চালের বরাদ্ধ আরো বাড়ানো দরকার বলে তিনি মনে করেন।

শিবালয় উপজেলঅ মৎস্য কর্মকর্তা মো. রফিকুল আলম বলেন, ইলিশের জাটকা সংরক্ষণের লক্ষ্যে ফেব্রয়ারী থেকে মে এ চার মাস নদীতে জাটকা ধরা বন্ধ রাখতে জেলেদের মাঝে ভিজিএফর এ চাল বিতরণ করা হয়। চার মাস কার্ডধারী প্রতিটি জেলে পরিবারকে প্রতিমাসে ৪০ কেজি করে চাল দেওয়া হবে। শিবালয় উপজেলায় প্রায় ২ হাজার জেলে রয়েছে কার্ডধারী। কার্ডধারীর বাইরেও অনেক জেলে রয়েছে। তাই চাহিদার তুলনায় বরাদ্ধ কম হওয়াতে সবাইকে চাল দেওয়া সম্ভব হচ্ছেনা। তবে পর্যায়ক্রমে চাহিদা অনুযায়ী বরাদ্ধ বাড়ানোর জন্য চেষ্টা করা হবে বলে তিনি জানান।

শাহজাহান বিশ্বাস, মানিকগঞ্জ।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazargonoche21

© All rights reserved  2020 Gonochetona.com