1. dailygonochetona@gmail.com : admi2017 :
  2. aminooranzan@gmail.com : Amin Anzan : Amin Anzan
  3. aminooranzan24@gmail.com : Amin Anzan : Amin Anzan
  4. chanmiahsw@gmail.com : chan miah : chan miah
  5. sbnews74@gmail.com : sajahan biswas : sajahan biswas
শনিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২১, ০১:৪৮ অপরাহ্ন

পাটুরিয়ায় পরিবহণে মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদের নামে চাঁদাবাজির পায়তারা

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারী, ২০২১, ২.৩৮ এএম
  • ৯৮ বার পঠিত

বিশেষ প্রতিনিধি:

মানিকগঞ্জের শিবালয়ে পাটুরিয়া ঘাটে একটি চিন্থিত মহল ‘মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদ’ যৌথ কমিটি’র নামে একটি সংগঠণ অবৈধভাবে পরিবহণ থেকে পুরানো স্টাইলে চাঁদাবাজিসহ বিশৃক্সখলা সৃষ্টির পায়তারা করছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে পরিবহন মালিকদের মাঝে চরম অসন্তোষ বিরাজ করছে এবং ঘাটে বিশৃক্সখলা সৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এ থেকে পরিত্রাণ পেতে মানিকগঞ্জ জেলা বাস,কোচ, মিনিবাস ও মাইক্রোবাস মালিক সমিতি’র পক্ষ থেকে মানিকগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। অভিযোগে জানা গেছে, মানিকগঞ্জ জেলা বাস,কোচ, মিনিবাস ও মাইক্রোবাস মালিক সমিতি (রেজি নং-ঢাকা-৫৪৯৭) দীর্ঘ দিন ধরে পাটুরিয়া হতে ঢাকার বিভিন্ন প্রান্তে চলাচলকারী পরিবহণগুলো পরিচালনা করে আসছে। ইতিমধ্যে সড়ক পরিবহণ পরিচানা নির্দেশিকা অমান্য করে মানিকগঞ্জ জেলা বাস, মিনিবাস, মাইক্রোবাস মালিক সমিতি’র সভাপতি কাজী এনায়েত হোসেন টিপু ও সাধারণ সম্পাদক মতিউর রহমান এবং মানিকগঞ্জ জেলা সড়ক পরিবহণ শ্রমিক ইউনিয়ন এর সভাপতি বাবুল সরকার, সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম এদের যৌথ স্বাক্ষরে শিবালয়ের পাটুরিয়াতে পাটুরিয়া ঘাট মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদ নামে নতুন করে একটি কমিটি দিয়ে পুরানো কায়দায় চাঁদাবাজি এবং বিশৃক্সখলা সৃষ্টির পায়তারা করছে। একই স্থানে একাধি কমিটি, উপ-কমিটি দিয়ে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির আশংকায় পরিবহণ মালিকদের মাঝে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। বিগত তিন/চার বছর পূর্বে এদের নের্তৃত্বেই যৌথভাবে পাটুরিয়া ও আরিচা ঘাটে চাঁদাবাজি হতো। এরা যদি আবার পরিবহণ পরিচালনার নামে ঘাটে চাঁদাবাজি এবং বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে তাহলে বর্তমান সরকারের ভাবমুর্তি ক্ষুন্ন হবে এবং সড়ক পরিবহন পরিচালনা নির্দেশিকার পরিপন্থি হবে বলে অভিযোগকারীরা জানান।

সড়ক পরিবহণ পরিচানা নির্দেশিকায় উল্লেখ্য রয়েছে এক অঞ্চলে মালিক সমিতি ও শ্রমিক ইউনিয়নের রেজি:/কার্যক্রম থাকলে অন্য কোন মালিক সমিতি/শ্রমিক ইউনিয়ন কোনরূপ শাখা কমিটি বা উপ-কমিটি গঠণ করতে পারবে না। এ সিদ্ধান্তে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহণ মালিক সমিতি, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহণ শ্রমিক ফেডারেশন, বাংলাদেশ বাস, ট্রাক ওনার্স এসোসিয়েশন ও বাংলাদেশ ট্রাক ও কাভার্ডভ্যান মালিক সমিতি’র নের্তৃবৃন্দ একমত পোষন করে ২০২০ সালের ৬ সেপ্টেম্বর যৌথ স্বাক্ষরে চুক্তিবদ্ধে আবদ্ধ হন। যেহেতু পাটুরিয়া ঘাটে মানিকগঞ্জ জেলা বাস, কোচ, মিনিবাস ও মাইক্রোবাস মালিক সমিতি পরিবহণ পরিচালনা করে আসছে, সেহেতু অন্যকোন সংগঠণের প্রয়োজন নেই বলে স্থানীয় পরিবহণ মালিকরা মনে করেন। পূর্বের ওই চাঁদাবাজদ্বয় যদি পুনারায় কমিটি দিয়ে চাঁদা আদায়ের চেষ্টা করে তাহলে মালিক পক্ষ ও অন্যান্য পরিবহণের মালিকগণ যাত্রী পরিবহণ হতে বিরত থাকবে এবং এর ফলে কোন অতিপ্রেতিকর ঘটনা ঘটলে পূর্বের ওই চাঁদাবাজ কমিটি দায়ী থাকবে বলে অভিযোগে উল্লেখ করেন।

এ ব্যাপারে মানিকগঞ্জ জেলা বাস,মিনিবাস,মাইক্রোবাস অটোটেম্পু ওনার্স গ্রুপ এর সভাপতি জাহিদুল ইসলাম জাহিদ বলেন, মালিক সমিতি করতে হলে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের রেজিষ্ট্রেশন লাগবে। শ্রমিক ইউনিয়নের রেজিষ্ট্রেশন দিয়ে মালিক সমিতি করা যায় না। বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অনুমতি ছাড়া যদি কেউ মালিক সমিতি করে সেটা হবে অবৈধ। বর্তমান সড়ক পরিবহণে সংগঠন পরিচালনার নির্দেশিকা অনুযায়ী মালিক সমিতি বলেন বা শ্রমিক ইউনিয়ন বলেন এর কোনটারই শাখা বা উপ-কমিটি দেওয়া যাবে না। মানিকগঞ্জ জেলা বাস,কোচ, মিনিবাস ও মাইক্রোবাস মালিক সমিতি’র সাধারণ সম্পাদক মো. হেলাল উদ্দিন বলেন, আমাদের সংগঠন দীর্ঘ দিন ধরে পাটুরিয়া হতে গাবতলী পর্যন্ত চালাচলকারী পরিবহণগুলো শান্তিপূর্ণভাবে পরিচালনা করে আসছে। এর মধ্যে মানিকগঞ্জের বাবুল সরকারগংদের কথিত সংগঠণ মানিকগঞ্জ জেলা পরিবহণ মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদ এর ‘পাটুরিয়া ঘাট মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদ’ নামে একটি উপ-কমিটি দিয়ে পুরানো কায়দায় চাঁদাবাজির পায়তারা করছে। যে কমিটিতে একজন বাদে নেই কোন মালিক এবং নেই কোন শ্রমিক। অথচ নাম দেওয়া হয়েছে মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদ। যার কোন ভিত্তি ও অস্থিত্ব নেই। এর কোন রেজিষ্ট্রেশন আছে কিনা আমার জানা নেই। মানিকগঞ্জ জেলা বাস,কোচ, মিনিবাস ও মাইক্রোবাস মালিক সমিতি’র কোষাধ্যক্ষ মো. আবুবক্কর সিদ্দিক বলেন, পূর্বের চিন্থিত একটি চাঁদাবাজ চক্র পাটুরিয়া ঘাটে ‘মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদ’ নামে একটি সংগঠণের ব্যানারে অবৈধভাবে পরিবহণ থেকে চাঁদাবাজির পায়তারা করছে। এতে পাটুরিয়া ঘাটে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হওয়ার সম্ভবনা রয়েছে। এ থেকে পরিত্রাণ পেতে মানিকগঞ্জ জেলা বাস,কোচ, মিনিবাস ও মাইক্রোবাস মালিক সমিতি’র পক্ষ থেকে মানিকগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগ কর হয়েছে বলে জানান তিনি। অভিযুক্ত মানিকগঞ্জ জেলা বাস, মিনিবাস, মাইক্রোবাস মালিক সমিতি’র সাধারণ সম্পাদক মতিউর রহমান সাংবাদিকদের জানান, আমাদের কমিটি’র বৈধতা রয়েছে। আমাদের সংগঠণ নিয়ে যে মামলা হয়েছিল তাতে আমাদের পক্ষে রায় এসেছে। পাটুরিয়া ঘাটে যে কমিটি দেওয়া হয়েছে তা সঠিক ও বৈধ। মানিকগঞ্জ জেলা সড়ক পরিবহণ শ্রমিক ইউনিয়ন এর সভাপতি বাবুল সরকারকে মোবাইল ফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করে তাকে পাওয়া যায়নি। এব্যাপারে মানিকগঞ্জের পুলিশ সুপার রিফাত রহমান শামীম বলেন, শুধু পাটুরিয়া ঘাট নয়, মানিকগঞ্জের কোথাও কাউকে কোন রকম চাঁদাবাজি করতে দেওয়া হবে না। যদি কেউ এরকম কাজের সাথে জড়িত থাকে অব্যশ্যই তার বিরুদ্ধে আইনানুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazargonoche21

© All rights reserved  2020 Gonochetona.com